Month: April 2014

গিনেস বুকে নাম ওঠাতে পরবর্তী আওয়ামী প্ল্যান

Shafik Rehman শফিক রেহমান

আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে গিনেস ব্রুয়ারির ম্যানেজিং ডিরেক্টর পদে কাজ করতেন স্যার হিউ বিভার। তিনি ছুটির দিনে তার বন্ধুদের নিয়ে পাখি শিকার করতে ভালোবাসতেন। তারা যেতেন বনে জঙ্গলে এবং পাহাড়ি এলাকায়। নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য খুজে বেড়াতেন নতুন জাতির পাখিকে…

সন্ত্রাস এ দেশে আছে কি নেই

বিগত কয়েক বছর সন্ত্রাসের নামে সরকার যদি একটি বুলেটও খরচ না করত তারপরও বিশ্বকাপের মতো মহাঘটনা শান্তিপূর্ণই হতো। এই দফায় সরকারকে অতিরিক্ত নিরাপত্তার আশ্রয় নিতে দেখা যায়নি কারণ, সন্ত্রাস এ দেশে নেই। কিন্তু ‘সন্ত্রাস আছে’ বলাটা গদি রায় কতটা সহায়ক, বুঝতে হলে রাজনৈতিক শিক্ষা-দীক্ষা এবং সচেতনতা প্রয়োজন, যা ৯৯ ভাগ আইনপ্রণেতা এবং মানুষের নেই। সন্ত্রাস যারা করে, বক্তৃতায় নয়, ওসব জন্তু দেখলেই টের পাওয়া যায়। বিষয়টি মাননীয় আদালতের বিবেচনায় থাকা প্রয়োজন কারণ শেষ কথা তাদেরই। পদ-পদবি অস্থায়ী, স্বজন হারানোর বেদনা চিরস্থায়ী…

সাধারণ নির্বাচন: ভারতে ও বাংলাদেশে

Serajur Rahman

ইংরেজ প্রায় দুই শ’ বছর তার ভারতীয় সাম্রাজ্য শাসন করেছে। ভারতবর্ষ সম্বন্ধে প্রায় সম্পূর্ণ অনভিজ্ঞ কিছু ইংরেজ কর্মকর্তা বহু অনুগ্রহভোগী ভারতীয়ের সাহায্যে এই বিশাল দেশের ওপর কর্তৃত্ব বজায় রেখেছে। প্রথমে কলকাতায় এবং পরে দিল্লিতে বসে ব্রিটিশের একজন ভাইসরয় এই বিশাল…

রঙের বায়োস্কোপ

Bioscope1

জজকোটের মহামান্য হাকিম সাহেব বাদী-বিবাদি দুপক্ষের সাক্ষীনুযায়ী মোমেনাকে পাঁচ বছর কারাদন্ড এবং সারে তিন হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই মাসের কারাদন্ড সাব্যস্ত করে। কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ আসামীর সকল দিক বিবেচনা মাথায় রেখে এবং নারী কল্যাণ সমিতির তকবীরে দু’ বছর আগেই মোমেনাকে বেকুসুর খালাস করে দেয়। কেন্দ্রীয় কারাগারের গেইটে আসে সাইদুর, চার টাকা দামের কাগজের মালা হাতে আর স্থানীয় এক মিষ্টান্ন’র দোকান থেকে বড়-বড় খান দুই চমচম নিয়ে, মোমেনাকে আর…

১২ বছর ক্রীতদাস এবং আমরা

mina farah

যারাই আমার মতো টিভির পর্দায় হীরে-জহরতে মোড়ানো বিস্ময়কর অস্কার রজনীটি উপভোগ করেছেন, নিশ্চয়ই একমত হবেন, বর্ণবাদের প-বিপ থাকলে, চেতনা নিয়ে কলঙ্কিত হওয়ার প্রশ্ন উঠলে, ফিল্ম-টিভি-বই নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তির হুমকি থাকলে সবার আগে নিষিদ্ধ হতো ‘১২ বছর ক্রীতদাস’ নামের ছবিটি। তা না হয়ে বরং শ্রেষ্ঠ ছবির পুরস্কার পেল, যা প্যালেস্টাইনকে ইসরাইলের স্বীকৃতি দেয়ার মতোই অবিশ্বাস্য। তাহলে স্বাধীনতার ৪৩ বছর পর পক্ষ বিপক্ষ সৃষ্টি করে আমরা কেন…

দেশে দেশে মাতৃত্ব আর সন্তান জন্মের আচার-সংস্কার

Finnish Baby Box

আবহমানকাল ধরে বিশ্বের নানান দেশে নানান সংস্কৃতিতে মা হওয়া আর সন্তান জন্মদানকে ঘিরে পালিত হয়ে আসছে নানা ব্রত, নানা আচার-অনুষ্ঠান, নতুন মাকে উপহার দেওয়ার বিচিত্র রীতি-নীতি। বিশ্বায়নের এই যুগে এসে আমরা বৈচিত্র্যময় নানান সংস্কৃতি থেকে মানব জন্মের এই চিরায়ত সুন্দরের কথা জানতে পারি, শিখতে পারি। একই সঙ্গে আমরা জেনে নিতে পারি এ বিষয়ে নানা সংস্কার ও কুসংস্কার সম্পর্কেও। গত মাসে আন্তর্জাতিক নারী দিবসকে ঘিরে প্রকাশিত এক বইয়ে লেখক ব্রিজিত…

সংস্কৃত নামক একটি ভাষার অপমৃত্যু এবং একটি আশঙ্কাজনক পোস্টমর্টেম রিপোর্ট

sanskrit-large

ভুল, এক্কেবারে ভুল তত্ত্ব মিথ হয়ে আছে। সংস্কৃত ভাষা মানুষের মুখের ভাষা নয়, দেবতাদের মুখ-নিঃসৃত ভাষাও নয় – তাই এটি দেবভাষাও নয়, সংস্কৃত লিপিও দেবনাগরী নয়। সংস্কৃত ভাষা অখণ্ড ভারতবাসীর আদি ভাষা নয় । সংস্কৃত বহিরাগতদের সৃষ্ট একটি কৃত্রিম বা বানানো ভাষা, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তৈরি করা হয়েছে। সংস্কৃত ছিল এই প্রাকৃত যুগের সমসাময়িক সাহিত্যিক ভাষা মাত্র। পতঞ্জলির কথিত শিষ্ট বা ব্রাহ্মণ্য সমাজে এর প্রচলন থাকলেও জনসাধারণের মধ্যে যে এর কোনোই ব্যবহার…

মেক্সিকান ক্যাথলিকরা ঈশ্বর খুঁজে পেয়েছেন

mexico

১৯৯৪ সালে মরক্কো থেকে মেক্সিকো সিটিতে এসেছিলেন সৈয়দ লুয়াহাবি। তখন এই শহরে মুসলমানের সংখ্যা ছিল মাত্র ৮০ জন। এদের বেশিরভাগই ছিল কূটনীতিক ও ব্যবসায়িক।স্মৃতি রোমন্থন করে লুয়াহাবি বলেন, ‘মুসলিম সম্প্রদায় ছিল খুবই ছোট। এদের বেশিরভাগই ছিল বিদেশি। মেক্সিকানরা ইসলাম সম্পর্কে তেমন কিছুই জানত না।’ তখন একটি মসজিদ খুঁজে পেতে তাকে হয়রান হতে হয়েছিল। লুয়াহাবি বলেন, ‘অনেক সময় ২-৩ মাসেও একজন মুসলমানের দেখা মিলত না।’ তবে এখন…

এভারেস্টে যানজট

যে রাস্তায় বড়জোর দশ-বারো জন যাতায়াত করতে পারেন, সেখানে ফুলেফেঁপে, গায়ে গায়ে সেঁটে থাকবে পাঁচ-সাতশো জনের ভিড়। দড়ি ধরে ঝুলতে ঝুলতেও উল্টো দিকের লোকগুলিকে নেমে আসার রাস্তা করে দিতে হবে। ভোর চারটেয় যে জায়গা পেরোতে আধ ঘন্টা লাগার কথা, সেখানে ঠেসাঠেসি করে ঘন্টা দুয়েক ঠায় দাঁড়িয়ে থাকা। অক্সিজেনের অভাব, শ্বাসকষ্টও বিচিত্র নয়…

বিনামূল্যে বিক্রি হচ্ছে আমাদের স্বাধীনতা

স্কুল পেরিয়ে যখন কলেজে ভর্তি হলাম, তখন প্রথম পড়েছিলাম আমার রাজনৈতিক তত্ত্বগুরু আবুল মনসুর আহমদের বই পাক-বাঙলার কালচার। বইটি পড়ে চমৎকৃত হয়েছিলাম। এবং আমার ভেতরে একধরনের বোধ কাজ করতে শুরু করে যে, আমরা পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ আসলে কারা। বাংলাদেশ আমলে বইটি বাংলাদেশের কালচার শিরোনামে পুনর্মুদ্রিত হয়। এই বইয়ের মর্মার্থ আত্মস্থ করার জন্য…