Category: রাজনীতি

সন্ত্রাস এ দেশে আছে কি নেই

বিগত কয়েক বছর সন্ত্রাসের নামে সরকার যদি একটি বুলেটও খরচ না করত তারপরও বিশ্বকাপের মতো মহাঘটনা শান্তিপূর্ণই হতো। এই দফায় সরকারকে অতিরিক্ত নিরাপত্তার আশ্রয় নিতে দেখা যায়নি কারণ, সন্ত্রাস এ দেশে নেই। কিন্তু ‘সন্ত্রাস আছে’ বলাটা গদি রায় কতটা সহায়ক, বুঝতে হলে রাজনৈতিক শিক্ষা-দীক্ষা এবং সচেতনতা প্রয়োজন, যা ৯৯ ভাগ আইনপ্রণেতা এবং মানুষের নেই। সন্ত্রাস যারা করে, বক্তৃতায় নয়, ওসব জন্তু দেখলেই টের পাওয়া যায়। বিষয়টি মাননীয় আদালতের বিবেচনায় থাকা প্রয়োজন কারণ শেষ কথা তাদেরই। পদ-পদবি অস্থায়ী, স্বজন হারানোর বেদনা চিরস্থায়ী…

সাধারণ নির্বাচন: ভারতে ও বাংলাদেশে

Serajur Rahman

ইংরেজ প্রায় দুই শ’ বছর তার ভারতীয় সাম্রাজ্য শাসন করেছে। ভারতবর্ষ সম্বন্ধে প্রায় সম্পূর্ণ অনভিজ্ঞ কিছু ইংরেজ কর্মকর্তা বহু অনুগ্রহভোগী ভারতীয়ের সাহায্যে এই বিশাল দেশের ওপর কর্তৃত্ব বজায় রেখেছে। প্রথমে কলকাতায় এবং পরে দিল্লিতে বসে ব্রিটিশের একজন ভাইসরয় এই বিশাল…

১২ বছর ক্রীতদাস এবং আমরা

mina farah

যারাই আমার মতো টিভির পর্দায় হীরে-জহরতে মোড়ানো বিস্ময়কর অস্কার রজনীটি উপভোগ করেছেন, নিশ্চয়ই একমত হবেন, বর্ণবাদের প-বিপ থাকলে, চেতনা নিয়ে কলঙ্কিত হওয়ার প্রশ্ন উঠলে, ফিল্ম-টিভি-বই নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তির হুমকি থাকলে সবার আগে নিষিদ্ধ হতো ‘১২ বছর ক্রীতদাস’ নামের ছবিটি। তা না হয়ে বরং শ্রেষ্ঠ ছবির পুরস্কার পেল, যা প্যালেস্টাইনকে ইসরাইলের স্বীকৃতি দেয়ার মতোই অবিশ্বাস্য। তাহলে স্বাধীনতার ৪৩ বছর পর পক্ষ বিপক্ষ সৃষ্টি করে আমরা কেন…

বিনামূল্যে বিক্রি হচ্ছে আমাদের স্বাধীনতা

স্কুল পেরিয়ে যখন কলেজে ভর্তি হলাম, তখন প্রথম পড়েছিলাম আমার রাজনৈতিক তত্ত্বগুরু আবুল মনসুর আহমদের বই পাক-বাঙলার কালচার। বইটি পড়ে চমৎকৃত হয়েছিলাম। এবং আমার ভেতরে একধরনের বোধ কাজ করতে শুরু করে যে, আমরা পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ আসলে কারা। বাংলাদেশ আমলে বইটি বাংলাদেশের কালচার শিরোনামে পুনর্মুদ্রিত হয়। এই বইয়ের মর্মার্থ আত্মস্থ করার জন্য…

জুতা ছুড়ে অপমানিত নাকি সম্মানিত করা হয়?

iktedar-ahmed

জুতা আভিজাত্যের প্রতীক। অতীতে রাজা-বাদশা, জমিদার ও অভিজাত শ্রেণীর মধ্যে দুষ্প্রাপ্য ও দামি অথচ আরামদায়ক জুতা পরার প্রতিযোগিতা ছিল। অতীতে জুতা প্রস্তুতে শুধু চামড়ার ব্যবহার হতো। চামড়ার জুতার মধ্যে গরুর চামড়ার জুতা তুলনামূলক অন্য চামড়ার জুতার চেয়ে সহজলভ্য ও মূল্যসাশ্রয়ী হলেও তা সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার নাগালের বাইরে ছিল। রাজা-বাদশা, জমিদার ও অভিজাত শ্রেণী হরিণ…

নাৎসিরা যেভাবে জার্মান জাতিকে শেকলবন্দী করেছিল

Serajur Rahman

প্রথম বিশ্বযুদ্ধে দুর্ধর্ষ জার্মান ইউবোট (সাবমেরিন) বহরের একজন ডাকসাইটে ক্যাপ্টেন ছিলেন মার্টিন নায়েমোলার। জার্মান মিডিয়া জাতির ও সামরিক বাহিনীর মনোবলকে উজ্জীবিত করার লক্ষ্যে তাকে নিয়ে বহু কাহিনী প্রচার করেছে। সে যুদ্ধের পর তিনি নৌবাহিনী ছেড়ে যাজক বৃত্তি গ্রহণ করেন। গোড়ায় তিনি হিটলারের রাজনীতিকে সমর্থন করতেন। হিটলারের দলের পোশাকী নাম ন্যাশনাল সোস্যালিস্ট…

এতটা নিষ্ঠুর ও অনিরাপদ বাংলাদেশ আমরা প্রত্যাশা করি না

Moinul Hossain

জনগণের কাছে সরকারের বৈধতা বা না থাক, জীবনের ন্যূনতম নিরাপত্তা বিধানে তাকে যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে সচেষ্ট হতে হবে। এ ব্যাপারে সরকারের ভেতরই যদি বিশৃংখলা থেকে থাকে, তবে তার বিরুদ্ধে সরকারকেই লড়তে হবে। ব্যাপক লুটপাট, দুর্নীতি আর বিচারবহির্ভূত হত্যাকা- সরকারের ভেতরকার বিশৃংখলার উদাহরণ। পুলিশের গুলিতে কিংবা ক্রসফায়ারে…

যে হাত খেতে দেয় সে হাত কামড়াতে নেই

Serajur Rahman

আওয়ামী লীগের মন্ত্রীদের নিয়ে শত দুঃখেও মাঝে মাঝে হাসতে ইচ্ছে করে। তারা মনে করেন বাকি বিশ্বের মাথা তাদের কাছে বন্ধক আছে। তারা কারও কথা শুনবেন না, কিন্তু তাদরে কথা মেনে চলতে অন্যেরা বাধ্য থাকবে। তার একচুল এদিক-ওদিক হলে মন্ত্রীদের মুখ দিয়ে যেসব ‘অমৃত বাণী’ অঝোরে ঝরতে থাকে, হাসিটার উদ্রেক হয় সেখানে থেকেই…

হাউ মাউ খাউ, দেশপ্রেমিকের গন্ধ পাউ

হাউ মাউ খাউ, মানুষের গন্ধ পাউ! এ ধরনের হালুম মালুম কথা বলেই রাক্ষস-খোক্ষসেরা মানুষের ওপর হুমড়ি খেয়ে পড়ে। সবাইকে খেয়ে ফেললেও কী কারণে যেন পরমা সুন্দরী এক রাজকন্যাকে বাঁচিয়ে রাখে। তাকে পাতালপুরীতে নিয়ে আটকে রাখে। তারপর এক রাজপুত্র অনেক বুদ্ধি খাটিয়ে ও সাহস দেখিয়ে সেই রাজকন্যাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। রাজকন্যার মাথার কাছে সোনার কাঠি আর…

দ্রুত সংলাপ ও সমঝোতা বনাম মহাবিপর্যয়

Serajur Rahman

পাকিস্তানে একটা যুগান্তকারী ঘটনা ঘটেছে বলা যায়। তালেবানদের চার সদস্যের একটা প্রতিনিধিদল ইসলামাবাদে সরকারের একটি প্রতিনিধিদলের সাথে তিন ঘণ্টা ধরে শান্তি আলোচনা শুরু করেছে। আলোচনায় উল্লেখযোগ্য কোনো উন্নতি হয়েছে বলে দাবি করা হয়নি। হবে বলে কেউ আশাও করেনি। দু’টি প্রতিনিধিদল শুধু পরস্পরের…