Category: নির্বাচন

সংসদ নির্বাচন ২০১৪

অনেক বিরোধিতা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়ে গেল। নির্বাচনের পরদিন এটাই বলার আছে যে অপারেশন সাকসেসফুল, বাট পেশেন্ট ইজ ডেড। নির্বাচনের নামে গণতন্ত্রের দেহে যে অস্ত্রোপচার হলো, তা আইনত ঠিক থাকলেও গণতন্ত্র নামক রোগীর জীবন আরও বিপন্নই হলো। বিএনপির বর্জনের মুখে প্রধানমন্ত্রীর ভাষায় খালি মাঠে গোল দেওয়ার সুবাদে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ ও তার সহযোগীরা প্রয়োজনের চেয়েও অনেক বেশি আসনে বিজয়ী হয়েছে। ১৫৩টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই ছিল না। সাংবিধানিক ধারাবাহিকতার নামে এ নির্বাচন করা হলো। এর মাধ্যমে আসলেই কি সংবিধান সমুন্নত থাকবে? এই নির্বাচন কি আমাদের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে শক্ত করবে, নাকি আরও সংকটে ফেলে দেবে…

ফুলে-ফেঁপে উঠেছে সম্পদ

corrupt mps

মন্ত্রী-সাংসদদের একটি অংশ পাঁচ বছরে অস্বাভাবিক সম্পদের মালিক হয়েছে। ক্ষমতা নামের আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপ বদলে দিয়েছে তাঁদের স্ত্রীদেরও। অথচ দৃশ্যমান তেমন কোনো আয় অনেকেরই নেই। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার শর্ত হিসেবে নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফনামা থেকে তাঁদের স্বেচ্ছায় ঘোষিত এই সম্পদের হিসাব জানা গেছে। ১৪ ডিসেম্বর থেকে এসব তথ্য সাধারণের জন্য কমিশনের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। নতুন এই তথ্যের সঙ্গে আগের নির্বাচনের সময় ২০০৮ সালে দেওয়া হলফনামা বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়…

রাষ্ট্রীয় সংকট ও রাষ্ট্রপতি

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে চলমান সংকটটি বিস্তারিত ব্যাখ্যার আবশ্যকতা নেই। পাশাপাশি তৈরি পোশাকশিল্প খাতে নাশকতা ও ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর বিচ্ছিন্ন হামলাসহ আরও কতিপয় বিষয় উপরিউক্ত সংকটকে বহুমাত্রিক করছে। যাঁরা প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী বা উগ্র সমর্থক তাঁরা এটার সমাধান চান নিজেদের সুবিধাজনক প্রক্রিয়ায়। আর দেশবাসী কিন্তু চায় সম্মানজনক ও গ্রহণযোগ্য একটি শান্তিপূর্ণ সমাধান। সমস্যা সমাধানে দেশি-বিদেশি প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু সমাধানে যাদের প্রধান ভূমিকা তারা অনেকটা…