Author: ইকতেদার আহমেদ

জুতা ছুড়ে অপমানিত নাকি সম্মানিত করা হয়?

iktedar-ahmed

জুতা আভিজাত্যের প্রতীক। অতীতে রাজা-বাদশা, জমিদার ও অভিজাত শ্রেণীর মধ্যে দুষ্প্রাপ্য ও দামি অথচ আরামদায়ক জুতা পরার প্রতিযোগিতা ছিল। অতীতে জুতা প্রস্তুতে শুধু চামড়ার ব্যবহার হতো। চামড়ার জুতার মধ্যে গরুর চামড়ার জুতা তুলনামূলক অন্য চামড়ার জুতার চেয়ে সহজলভ্য ও মূল্যসাশ্রয়ী হলেও তা সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার নাগালের বাইরে ছিল। রাজা-বাদশা, জমিদার ও অভিজাত শ্রেণী হরিণ…

জন-আশা পূরণের পালা

জনগণের অভিপ্রায়ের পরম অভিব্যক্তিরূপে স্বাধীনতা-পরবর্তী এক বছরের মাথায় আমাদের যে সংবিধান রচিত হয়েছে তার মূল ভিত্তি হলো জনপ্রতিনিধিত্বশীল শাসনব্যবস্থার মাধ্যমে শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা। স্বাধীনতা-পূর্ববর্তী পাকিস্তানের রাষ্ট্রকাঠামোয় অনুষ্ঠিত ‘৭০-এর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জন-আকাংখার প্রতিফলনে সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে বিজয়ী হয়ে পাকিস্তানের শাসনক্ষমতা পরিচালনার অধিকার লাভ করলেও তা থেকে বৈধ কারণ ব্যতিরেকে বঞ্চিত করার ফলে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে বাংলাদেশ রাষ্ট্রটির আবির্ভাব…

সাংবিধানিক প্রশ্নগুলোর সূরাহা জরুরী ছিল

প্রজাতন্ত্রের আইন প্রণয়নের ক্ষমতা সংসদের ওপর ন্যস্ত। তাছাড়া সংসদ সদস্যগণ সরকারের মন্ত্রী হিসেবে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন। সংসদ কিভাবে গঠিত হবে সে বিষয়ে সংবিধানের দিক নির্দেশনার প্রতি আলোকপাত করলে দেখা যায় একক আঞ্চলিক নির্বাচনী এলাকা হতে মহিলা ও পুরুষ উভয়ের জন্য উন্মুক্ত প্রত্যক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে আইনানুযায়ী নির্বাচিত ৩০০ সদস্য এবং উক্ত সদস্যদের আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব পদ্ধতির ভিত্তিতে একক হস্তান্তরযোগ্য ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত ৫০টি সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য সর্বমোট ৩৫০ সদস্য সমন্বয়ে সংসদ গঠিত…