অনলাইনে গ্রাম বিক্রি!

italian-alpine-village-for-sale-on-ebay_5224709

বাড়ি, গাড়ি, জামা-কাপড়, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদিসহ হেন কোনও জিনিস নেই যা বর্তমানে অনলাইনে কেনা ও বেচা করা যায় না। তাই বলে গোটা একটা গ্রাম বিক্রি, তাও আবার অনলাইনে। প্রথম প্রথম খটকা লাগলেও ঘটনা সত্য। এই প্রথম অনলাইনে বিক্রির জন্য একটি গ্রাম তোলা হলো।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অনলাইনে কেনা-বেচার মাধ্যম ইবেতে ইতালির গ্রাম ‘কালসাজিও’ (Calsazio) বিক্রির বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে। তবে সময় খুব বেশি নয়। গ্রামটি কিনতে হলে আগামী ১৫ জুলাইয়ের মধ্যে ব্যবস্থা নিতে হবে। ইতালির জাতীয় উদ্যান গ্রান প্যারাডাইসের পাশেই ছবির মতোই সুন্দর গ্রামটি। কালসাসিও-এর বাসিন্দাও খুব বেশি নয়। গ্রামটির চারপাশের আলপাইনের ঘন জঙ্গল। জাতীয় উদ্যানের পাশে হওয়াতে ওই জঙ্গলের বেশিভাই সংরক্ষিত বনাঞ্চল। পাহাড়ি গ্রামটিতে ১৪টি কাঠের, ৫০টি পাথর ও কংক্রিটের বাড়ি রয়েছে।

Calsazio_2965893b

মূলত কালসাজিও’র বাসিন্দাদের জন্যই গ্রামটি বিক্রির জন্য তোলা হয়েছে। কারণ দিন দিন গ্রামটির জনসংখ্যা কমে যাচ্ছে। উন্নত জীবনের আশায় গ্রামের লোকজন পাড়ি জমায় ইতালির বিভিন্ন শহরে। এরপর তারা আর গ্রামে ফিরে আসছে না। তাদের আশঙ্কা, কোনও একদিন হয়তো গ্রামের জনসংখ্যা শূন্যের কোঠায় পৌঁছাবে। তাই তাদের আশা দেশের ধনী ক্রেতা তাদের গ্রামটিকে কিনে তাদের রক্ষা এগিয়ে আসবেন। এরপর আবারও তাদের গ্রামে লোক সমাগম হবে।

গ্রামটি বিক্রির ব্যবস্থা করেছে ইতালির ইউনিয়ন অব মাউন্টেন কমিউনিটিস (ইউএনসিইএম)। নিলামে গ্রামটির দাম হাঁকা হয়েছে এক লাখ ৯৫ হাজার পাউন্ড থেকে দুই লাখ ৪৫ হাজার পাউন্ডের মধ্যে।

Gran-Paradiso_BAE3_2966015b

পর্যটক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার ইচ্ছা থেকেই গ্রামটিকে ইবেতে বিক্রিতে জন্য তোলা হয়েছে। তবে গ্রাম বিক্রির শর্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যে বা যারা গ্রামটি কিনবেন তারা বাড়িঘরের নকশা বদল করতে এবং স্থানীয় ঐতিহ্যকে নষ্ট করতে পারবে না।

ইতালির প্রথম রাজা ভিত্তোরিও ইমানুয়েল দ্বিতীয়-এর শিকারের জন্য ওই এলাকাকে সংরক্ষিত করা হয়। ১৯২২ সালে ওই এলাকা বেশিরভাগ বনাঞ্চল নিয়ে জাতীয় উদ্যান গড়ে তোলা হয়।

ইউএনসিইএম-এর প্রতিনিধি মারকোস বুসোনে বলেন, “কালসাজিও বিক্রি করা হবে এমন একজনের কাছে যিনি আমাদের গ্রামের ঐহিত্য ধরে রাখবেন। বছর খানেক আগে থেকেই ক্রেতারা গ্রামটি কেনার জন্য আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে।”